রাজ্য

নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে পড়ুয়াদের গ্রিটিংস কার্ড দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

এখন প্রায় গ্রিটিংস কার্ড দেখা যায় না সোস্যাল মিডিয়ার যুগে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের জন্য সেটা আবার ফিরিয়ে আনলেন। ‘স্টুডেন্টস উইক’ পালিত হবে ইংরেজি নববর্ষের শুরু থেকে ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত। এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বুধবার স্কুলশিক্ষা ও উচ্চশিক্ষা দপ্তরের প্রধান সচিব প্রত্যেক জেলাশাসক, কলকাতার পুরকমিশনার ও জিটিএ সচিবকে।

কোনও খোলা জায়গায় প্রার্থনার মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হবে ‘স্টুডেন্টস উইক’-এর প্রথমদিন। সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এক মিনিট নীরবতা পালন হবে প্রয়াত কোভিড যোদ্ধাদের স্মৃতীতে। নতুন বই-খাতা এবং মুখ্যমন্ত্রীর গ্রিটিংস কার্ড তুলে দেবে স্কুল কর্তৃপক্ষ স্কুলের প্রত্যেক ছাত্রছাত্রীর হাতে।

ইতিমধ্যে পৌঁছে গিয়েছে শিক্ষকদের কার্ড। দু’ঘণ্টার প্রতিদিন অনুষ্ঠান হবে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে। এই নির্দেশিকার কপি পাঠানো হয়েছে রাজ্যের সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদেরও।

আরও পড়ুন: মোটেই সুবিধার নয় কলকাতার ওমিক্রন-পরিস্থিতি, চিঠি এল নবান্নে!

পড়ুয়াদের জানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সপ্তাহভর নাচ, গান, অঙ্কন প্রতিযোগিতার পাশাপাশি সরকারের শিক্ষামূলক প্রকল্পগুলির কথাও। কলকাতার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে হবে ৩ জানুয়ারি হবে রাজ্যস্তরে ‘স্টুডেন্টস উইক’-এর মূল অনুষ্ঠানটি। প্রাক প্রাথমিক থেকে অষ্টম শ্রেণির সব পড়ুয়াকে উন্নীত করা হয়েছে পরের ক্লাসে।

৩ তারিখ থেকে ফের শুরু হচ্ছে অনলাইন ক্লাস। ওই দিন নতুন ক্লাসের বই এবং মিড-ডে মিলের খাদ্যসামগ্রীও বিতরণ হবে। ১৬ নভেম্বর থেকে দ্বিতীয় দফায় চালু হয়েছে নবম থেকে দ্বাদশের ক্লাস। অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ুয়াদের নতুন পাঠ্যবই শুধুমাত্র অভিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে স্কুলশিক্ষা দপ্তর।

বরাবরই ছাত্রদের পাশে দাঁড়িয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পড়ুয়াদের স্বার্থে একাধিক প্রকল্প চালু করেছে রাজ্য। এবার ১ জানুয়ারিকে স্টুডেন্টস ডে অর্থাত্‍ ছাত্র দিবস হিসেবে ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। বিধানসভা নির্বাচনের আগেই ভোটে জয়লাভ করলে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ক্ষমতায় এসেই কথা রেখেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই চালু হয়েছে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড প্রকল্প।

আরও পড়ুন ::

Back to top button