বলিউড

মৃত্যুর ১ বছর আগে বনির সঙ্গে তিন মাস কথা বলেননি শ্রীদেবী!

২০১৮ সালেই হঠাৎই মারা যান ভারতীয় সিনেমার প্রথম নারী সুপারস্টার শ্রীদেবীর। দুবাইয়ের আত্মীয়ের বিয়েতে গিয়েছিলেন। সেখানে পাঁচতারা হোটেলর বাথটবে মারা যান তিনি। অভিনেত্রীর মৃত্যুর পর নানা জল্পনা হয়েছে। পরিস্থিতি এমন হয়, একাংশ আঙুল তোলেন শ্রীদেবীর স্বামী বনি কাপুররে দিকে। যদিও শ্রীদেবী ও বনি কাপুর ‘বি’-টাউনের অন্যতম পাওয়ার কাপল বলেই পরিচিত ছিলেন। অর্জুন কাপুরের মাকে ডিভোর্স দিয়ে শ্রীদেবীর সঙ্গে সংসার পাতেন বনি। তবে জানেন কি মৃত্যুর এক বছর আগে স্বামীর সঙ্গে তিন মাসের জন্য কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছিলেন শ্রীদেবী।

আসলে মৃত্যুর ঠিক একবছর আগে শ্রীদেবী ২০১৭ সালে ‘মম’ ছবিটি মুক্তি পায়। ২০১৭ সালে ‘মম’-এর ট্রেলার লঞ্চ অনুষ্ঠানে এসে শ্রীদেবী বলেন, ‘তিন মাস ধরে বনি জির সঙ্গে কথা বলিনি। সকালে তাকে শুধু গুড মর্নিং বলতাম, প্যাক আপের পরে গুড নাইট লিখতাম- এটুকুই কথা। ব্যাস এতটুকুই কথাবার্তা হতো আমাদের মধ্যে।’

শ্রীদেবী বলেন, ‘আমি পরিচালকের অভিনেতা। আমার পরিচালক বলেছিলেন এভাবে প্রস্তুতি নিতে। নিজেকে সম্পূর্ণ আত্মসমর্পণ করেছিলাম। আমি তার দৃষ্টিভঙ্গি অনুসরণ করেছি এবং তিনি দুর্দান্ত কাজ করেছেন।’

শ্রীদেবীর ‘ষোলা সাওয়ান’ দেখার পরই বনি কাপুর ঠিক করেন তিনি তার প্রোডাকশন হাউসে মিস্টার ইন্ডিয়া সিনেমায় তাকে কাস্টিং করবেন। কিন্তু সেই সময় অভিনেত্রীর সব কিছু দেখাশোনা করতেন তার মা। সেই সময় অভিনেত্রীর মাকে ইমপ্রেস করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন বনি কাপুর। ১৯৯৬ সালে বনি আর শ্রীদেবী সাত পাঁকে বাঁধা পড়েন। তাদের দুই কন্যা- জাহ্নবী আর খুশি। শিশুশিল্পী হিসেবে বলিউডে তার অভিষেক হয় ১৯৭৫ সালে ‘জুলি’ ছবিতে। মাত্র ১৩ বছর বয়সে সুপারস্টার রজনীকান্তের মায়ের চরিত্রে অভিনয় দিয়েই চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন শ্রীদেবী। তারপর আর তাকে পেছনে ফিরে দেখতে হয়নি।

শ্রীদেবীর সব থেকে কাছের ছিলেন জাহ্নবী কাপুর। শ্রীদেবী নাকি কখনো চাইতেন না জাহ্নবী অভিনয় জগতে আসুন। মেয়ে এতটাই স্পর্শকাতর যে, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি থেকে তাকে দূরে রাখতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তার ইচ্ছাকে কখনো জাহ্নবীর স্বপ্ন পূরণে বাধা হয়ে দাঁড়াতে দেননি সুপারস্টার মা।

আরও পড়ুন ::

Back to top button