জাতীয়

কোলে বসে অভিনব প্রতিবাদে সামিল তরুণ-তরুণীরা

ছেলে-মেয়ে যেন একসঙ্গে বসতে না পারে সে জন্য বাসস্ট্যান্ডের বসার জায়গা তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছিল। ঘটনাটি ঘটেছিল কেরলের তিরু অনন্তপুরমে ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের সামনের বাসস্ট্যান্ডে।

এ ঘটনায় ভিন্নধর্মী প্রতিবাদ জানিয়েছে শিক্ষার্থীরা।লিঙ্গ-নিরপেক্ষ বসার জায়গার দাবিতে নারী সহপাঠীরা পুরুষ সহপাঠীদের কোলে বসে এর প্রতিবাদ জানায়। প্রতিবাদের সেই ছবি দেশজুড়ে ভাইরাল হয়। অবশেষে ওই বাসস্ট্যান্ডে বসার জায়গা নতুন করে তৈরি করল প্রশাসন।

স্থানীয় মেয়র আর্য এস রাজেন্দ্রন জানান, তাদের প্রতিবাদের ফলে লিঙ্গ-নিরপেক্ষ বসার জায়গা তৈরি হল। যেভাবে ওই বসার জায়গা তৈরি হয়েছিল, তা ঠিক ছিল না।

তিরু অনন্তপুরমের শ্রীকরমের সরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের সামনে ওই বাসস্ট্যান্ডে ছাত্রছাত্রীদের ভিড় লেগেই থাকত। কিন্তু বাসস্ট্যান্ডে ছেলে মেয়েদের বসার জায়গা ছিল আলাদা। এর প্রতিবাদ করেন কয়েকজন কলেজ শিক্ষার্থী। ওই আসনে একে অন্যের কোলে বসে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তারা। তারপরেই পদক্ষেপ গ্রহণ করে প্রশাসন।

আরও পড়ুন :: ট্রেনের জানালা দিয়ে ফোন চুরির চেষ্টা, ১০ কিমি ঝুলে থাকলো চোর

কোলে বসে প্রতিবাদ করা তাদের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।এর পরই ওই বাসস্ট্যান্ড পরিদর্শনে যান মেয়র।

তিনি জানান, বেঞ্চগুলোকে তিন ভাগে ভাগ করা উচিত হয়নি। কেরলের মতো একটি প্রগতিশীল রাজ্যে এমন দৃষ্টিভঙ্গি একটি খারাপ নিদর্শন। এরপর মেয়রের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ওই বাসস্ট্যান্ডে একটি বেঞ্চ তৈরি হয়েছে।সেখানে নারী-পুরুষ—সবাই পাশাপাশি বসতে পারবেন।

এ নিয়ে মেয়র বলেন, ‘কেরল নারী এবং পুরুষে কোনও বিভেদ করে না। সবাই মানুষ। কিন্তু কিছু নীতিপুলিশ আছেন, যারা এখনও প্রাচীন সময়ে বাস করেন।’

বাসস্ট্যান্ডে লিঙ্গ-নিরপেক্ষ নতুন বসার জায়গা হওয়ায় খুশি ওই কলেজের শিক্ষার্থীরা। প্রশাসনের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন তারা।

সূত্র : আনন্দবাজার

আরও পড়ুন ::

Back to top button