রাজনীতিরাজ্য

মমতার ‘সৌজন্য’ বোঝাতে পুস্তিকা করলেন প্রকাশ শুভেন্দুর! কী আছে এই বইতে?

ওয়েস্ট বেঙ্গল নিউজ ২৪

মমতার 'সৌজন্য' বোঝাতে পুস্তিকা করলেন প্রকাশ শুভেন্দুর! কী আছে এই বইতে?

দিন কয়েক আগেই বিধানসভায় সৌজন্য সাক্ষাৎ হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর মধ্যে। যা নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল। সেই জল্পনা আলোচনার আবহেই বই প্রকাশ করে মমতাকে তীব্র আক্রমণ করলেন শুভেন্দু।

কী নাম বইয়ের? কী আছে বইটিতে?

বইয়ের নাম ১৯৫৬। মঙ্গলবার তিনটি ভাষায় এই বই প্রকাশ করলেন শুভেন্দু অধিকারী। বইয়ের প্রচ্ছদে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি। জানা গিয়েছে, বইটির মূল প্রতিপাদ্য শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে ২০২১ সালের ৫ মের পর থেকে যে মামলাগুলি করা হয়েছে, সেইসব লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। শুভেন্দুর দাবি, অন্য কোথাও বিরোধী দলনেতার বিরুদ্ধে এত মামলা করা হয় না।

রাষ্ট্রপতি, উপরাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, লোকসভার অধ্যক্ষ ছাড়াও বাংলার বাইরে সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের চিঠি সহ এই বই পাঠানো হবে। এমনকী, এনডিএ বিরোধী দল যেখানে রয়েছে সেখানেও বিরোধী দলনেতাদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে এই বই। ৬ পৃষ্টার এই পুস্তিকার মূল কথাই হল,  বিরোধী দলনেতাকেও মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে কসুর করেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার।

সাংবাদিক বৈঠক করে বই প্রকাশ করে শুভেন্দু বলেন, আমাকে ১০টি জায়গায় যাওয়ার ক্ষেত্রে আটকানো হয়েছে। তার ছবিগুলি আমি দিয়েছি। ৫ মে ২০২১ থেকে ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত মামলা করা হয়েছে। সেই সমস্ত মামলাই পুস্তক আকারে দিচ্ছি যেগুলি হাইকোর্টে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। তবে এতে আমি ভীত নই। আইনের ওপর আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে।

এদিকে এই বই নিয়ে কটাক্ষ করে তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর ছবি দেওয়া হয়েছে বইয়ের প্রচ্ছদে। ছবিটি যে সময়ে তোলা হয়েছিল, তখন শুভেন্দু রাজ্যের ঠিক কতগুলি পদে ছিলেন সেই তালিকা দিয়ে দিন’।

অন্যদিকে পর্যবেক্ষকদের মতে,  মমতার সৌজন্য রাজনীতিতে সাড়া দিতে হলেও, বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না নন্দীগ্রামের বিধায়ককে। তাই ২৪ ঘণ্টা পেরতে না পেরতেই ঘনিষ্ট মহলে শুভেন্দু বলতে শুরু করেন, বিধানসভার সাক্ষাৎ আর সৌজন্য বিধানসভাতেই শেষ। তাই তড়িঘড়ি এই পুস্তিকা প্রকাশ।

আরও পড়ুন ::

Back to top button