রাজ্য

লালনের মৃত্যর তদন্ত ভার নিল সিআইডি, আজ রামপুরহাট যেতে পারেন সিবিআই শীর্ষকর্তাও

ওয়েস্ট বেঙ্গল নিউজ ২৪

লালনের মৃত্যর তদন্ত ভার নিল সিআইডি, আজ রামপুরহাট যেতে পারেন সিবিআই শীর্ষকর্তাও

বগটুইকাণ্ডের মূল অভিযুক্ত লালন শেখের মৃত্যুর ঘটনার তদন্তভার নিল সিআইডি। সোমবার বিকেলে রামপুরহাটে সিবিআইয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পে লালন শেখের রহস্যমৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। লালন আত্মহত্যা করেছে বলে দাবি সিবিআইয়ের। আজ, বুধবার রামপুরহাটের ওই ক্যাম্পে যেতে পারেন তদন্তকারীরা। যেতে পারে ফরেন্সিক দলও।

মঙ্গলবার রাতে কলকাতায় পৌঁছেই সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে বৈঠক করেন সিবিআইয়ের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর অজয় ভটনাগর। এদিন তিনিও রামপুরহাটে যেতে পারেন বলে সূত্রের খবর।

জানা গিয়েছে, সিআইডির পাশাপাশি লালনের মৃত্যুর ঘটনার সময় সিবিআই ক্যাম্পে উপস্থিত সিবিআই আধিকারিক, কর্মী এবং সিআরপিএফ জওয়ানদের সঙ্গেও কথা বলতে পারেন সিবিআইয়ের এই শীর্ষ কর্তা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সোমবার বিকেলে সিবিআই হেপাজতে থাকাকালীন অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে বগটুই গণহত্যা কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা লালন শেখের। সিবিআইয়ের দাবি, আত্মহত্যা করেছে লালন শেখ। কিন্ত তাঁকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে। সিবিআই এর বিরুদ্ধে এমনটাই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুলেছে লালনের পরিবার। তাঁর স্ত্রীর অভিযোগ, ঘটনার দিন দুপুরে লালনকে গ্রামে নিয়ে গিয়ে টাকার বিনিময়ে মামলা সামলে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন সিবিআই আধিকারিকরা। লালনকে প্রাণে মারারও হুমকি দেওয়া হয়।

লালনের পরিবারের অন্য সদস্যরাও একই অভিযোগ করেন। এরপরই লালন শেখের মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে সিআইডি তদন্তের দাবি জানায় পরিবার। এমনকী, এই ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবিও করেছেন লালন শেখের স্ত্রী রেশমা বিবি। ইতিমধ্যেই সিবিআই-এর আধিকারিকদের বিরুদ্ধে দায়ের হয়েছে এফআইআর। জেলা পুলিশের কাছ থেকে এই ঘটনার তদন্তভার হাতে নেওয়ায় খুশি লালনের পরিবারও।

আরও পড়ুন ::

Back to top button