রাজ্য

”আমার দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞতায় এমন ঘটনা হাইকোর্টে এমন ঘটনা দেখিনি” : বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়

ওয়েস্ট বেঙ্গল নিউজ ২৪

''আমার দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞতায় এমন ঘটনা হাইকোর্টে এমন ঘটনা দেখিনি'' : বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়

সোমবার বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার (Justice Rajshekhar Mantha) নামে হাই কোর্ট চত্বরেও পোস্টার পড়ে। তারও আগে তাঁকে নিয়ে দু’পক্ষের আইনজীবীদের সংঘর্ষে ধুন্ধুমার বাঁধে আদালত চত্বরেই। মঙ্গলবার বিচারপতি মান্থাকে সরাসরি বয়কটের প্রস্তাব আনেন কলকাতা হাই কোর্টের আইনজীবীদের একাংশ। এ সব নিয়ে গত দু’দিন নীরব ছিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়।

এবার এই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় (Justice Avijit Ganguly)। মরণোত্তর দেহদানের অঙ্গীকারপত্রে সই করতে মঙ্গলবার তিনি গিয়েছিলেন ‘গণদর্পণ’-এর দফতরে। সেখানেই তিনি বলেন , ”বাংলায় বিচার ব্যবস্থাকে ভয় দেখানো হচ্ছে। তবে কারা দেখাচ্ছে , তা নিয়ে সরাসরি কিছু বললেন না হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। বরং রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল (Trinamool Congress) যে এ সবে নেই , তা বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি বলেন, ‘‘আমার দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞতায় এমন ঘটনা হাইকোর্টে (Calcutta High Court) দেখিনি। পশ্চিমবঙ্গে বিচার ব্যবস্থাকে ভয় দেখিয়ে সন্ত্রস্ত করে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু বিচার ব্যবস্থাকে এ ভাবে ভয় দেখানো যাবে না।’’ মঙ্গলবার বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় (Justice Avijit Ganguly) বলেছেন, ‘‘আদালত চত্বরে ওই বিক্ষোভে যাঁরা ছিলেন তাঁদের প্রত্যেককেই আমি চিনি।’’

কিন্তু সেই পরিস্থিতির জন্য দায়ী কে ? বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের (Justice Avijit Ganguly) কথায়, ‘‘আমি শাসকদলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করব না। শুনেছি শাসকদল ওঁদের (বয়কটের পক্ষে থাকা আইনজীবী) প্রত্যাখ্যান করেছে। শাসকদলের অনেকেই আমাকে ভালবাসে। আমি শুনেছি , তারাও এটাকে সমর্থন (Support) করেনি।’’

প্রসঙ্গত, বিচারপতি মান্থার (Justice Rajshekhar Mantha) হাতে এই মুহূর্তে রাজ্যের অনেকগুলি মামলা রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে বিচারপতি এজলাস বয়কট করার ডাক দিয়েছেন বার অ্যাসোসিয়েশনের (Bar Association) সদস্যদের একাংশ। বিচারপতি মান্থার নামে ‘বিচারের নামে কলঙ্ক’ লেখা পোস্টার পড়ে আদালতের দেওয়ালে এবং বিচারপতির বাড়ির কাছে।

মঙ্গলবার এই সমস্ত ঘটনাকে অত্যন্ত নিন্দনীয় বলে উল্লেখ করে আদালত অবমাননার রুল জারি করতে বলেছিলেন বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য (Bikash Ranjan Bhattacharya) এবং সপ্তাংশু বসুর মতো আইনজীবীরা। বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় (Justice Avijit Ganguly) মঙ্গলবার বিকাশরঞ্জনদের সমর্থন করে বলেন, ‘‘বিকাশ ভট্টাচার্যের সঙ্গে এক মঞ্চে থাকা নিয়ে কোনও সমস্যা দেখছি না।’’

আরও পড়ুন ::

Back to top button