বিনোদন

ভারতে পাবজি’র বাজার নেবে অক্ষয়ের ‘ফৌ:জি’

অক্ষয় কুমার

বলিউড তারকা অক্ষয় কুমারের সঙ্গে মিলে ভারতে ‘ব্যাটল রয়্যাল’ ঘরানার গেইম আনছে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান এনকোর গেইমস। সম্প্রতি চীনের টেনসেন্ট নির্মিত ব্যাটল রয়্যাল গেইম ‘পাবজি মোবাইল’ নিষিদ্ধ করেছে ভারত।

রয়টার্স এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে, অক্টোবরের শেষ নাগাদ বাজারে চলে আসবে ‘ফিয়ারলেস অ্যান্ড ইউনাইটেড: গার্ডস’ বা ‘ফৌ:জি’ নামের ভারতীয় ব্যাটল রয়্যাল গেইমটি।

এনকোর গেইমসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ভিশাল গন্ডাল বলেছেন, “কয়েক মাস ধরেই গেইমটি নিয়ে কাজ চলছে। গেইমের প্রথম ধাপটি গালওয়ান উপত্যকার উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে।”

জুনে চীনা ও ভারতীয় সেনারা গালওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষে জড়িয়েছিলেন। পরে সেখানে মারা যান ২০ ভারতীয় সৈন্য। ওই জায়গার এক সীমান্ত নিয়েই ভারত ও চীনের দ্বন্দ্ব চলছে।

ওই ঘটনার পর থেকেই চীনকে নানাবিধ দিক থেকে চাপে ফেলার চেষ্টা করছে ভারত, বাদ যায়নি তথ্য ও প্রযুক্তি খাতও। একদম প্রথম ধাপেই টিকটকসহ ৫৯টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছিল ভারত, পরবর্তীতে পাবজি, বাইদুসহ আরও ১১৮টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে দেশটি।

আরও পড়ুন : অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি : ইয়ামি গৌতম

ভারতীয় ভাষায় ‘ফৌজি’ মানে ‘সৈনিক’। এনকোরের ‘ফৌ:জি’ গেইমটি ভারতীয় জাতীয়তাবোধ উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্য নিয়ে যাত্রা শুরু করবে। গন্ডাল জানিয়েছেন, মৃত সৈনিকদের পরিবারের জন্য রাষ্ট্র সমর্থিত ট্রাস্ট্রে মোট আয়ের ২০ শতাংশ দেবে এনকোর গেইমস।

গন্ডাল আরও জানিয়েছেন, ব্যাটল রয়্যাল গেইমটির টাইটেল নামটি এসেছে বলিউড তারকা অক্ষয় কুমারের কাছ থেকে। গেইমের ধারণা ও আবহ তৈরিতেও ভূমিকা রেখেছেন তিনি।

“তিনিই (অক্ষয়) গেইমের টাইটেল নাম ফৌ:জি দিয়েছেন।” – বলেছেন এনকোর গেইমসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা। গন্ডালের বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, বছরে ২০ কোটি গেইমার আনতে পারবেন বলে প্রত্যাশা করছেন অক্ষয় কুমার।

ভারতের বর্তমান ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর “আত্ম-নির্ভর” আহ্বানে সাড়া দিয়ে দেশীয় অনেক সেবা গড়ে উঠছে ভারতে। জুনে টিকটক বন্ধ হওয়ার পর, একাধিক ভারতীয় বিকল্প প্রতিষ্ঠান সে বাজার নেওয়ার চেষ্টা করেছে। এমনকি টিকটকের বাজার নিতে নিজস্ব অ্যাপ বানিয়েছে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ‘জি এন্টারটেইনমেন্ট এন্টারপ্রাইজ’ও।

 

আরও পড়ুন ::

Back to top button