ঝাড়গ্রাম

বিজেপি ক্ষুধার্ত নেকড়ে, কটাক্ষ তৃণমূল মুখপাত্রের

স্বপ্নীল মজুমদার

বিজেপি ক্ষুধার্ত নেকড়ে, কটাক্ষ তৃণমূল মুখপাত্রের

ঝাড়গ্রাম: বিজেপিকে ক্ষুধার্ত নেকড়ে বলে তীব্র কটাক্ষ করলেন ঝাড়গ্রাম জেলা তৃণমূলের মুখপাত্র সুব্রত সাহা। শনিবার ঝাড়গ্রাম শহরের রূপছায়া মোড়ে তৃণমূলের কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে কড়া ভাষায় বিজেপি-র সমালোচনা করেন সুব্রত। সূত্রের খবর, বিহারে এনডিএ জোটের সরকার ক্ষমতা দখল করায় রাজনৈতিক ভাবে অক্সিজেন পেয়েছে বঙ্গ-বিজেপি। আর তাতে কিছুটা হলেও তৃণমূল শিবির উদ্বিগ্ন বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

সূত্রের খবর, ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের দপ্তরের পরিকল্পনায় বিজেপিকে কাউন্টার করার জন্য জেলাস্তরে তৃণমূল নেতাদের সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে কড়া ভাষায় বিজেপি-র সমালোচনা করার নিদান দেওয়া হচ্ছে। সুব্রত অবশ্য এ কথা মানতে রাজি হননি। তাঁর দাবি, ”রাজ্য নেতৃত্বের নির্দেশে সাংবাদিকদের কাছে দলের বক্তব্য তুলে ধরেছি।”

আরও পড়ুন : বিজেপির সভায় জনসমুদ্রে ভেসে গেল গঙ্গাসাগর রুদ্রনগর

এদিন সুব্রত বলেন, “বাংলা দখলের জন্য ‘ক্ষুধার্ত নেকড়ে’র মতো ঝাঁপিয়ে পড়েছে বিজেপি। বহিরাগত নেতৃত্বদের এনে ভুয়ো তথ্য ছড়িয়ে রাজ্য সরকারকে কালিমালিপ্ত করার অপচেষ্টা হচ্ছে। বিহার ভোটে কোনও রকমে খুঁড়িয়ে এনডিএ ক্ষমতায় এসেছে। এরপরেই পাখির চোখ করে বিজেপি ক্ষুধার্ত নেকড়ের মতো বাংলার দিকে ঝাঁপিয়ে পড়েছে।

বঙ্গ বিজেপি-র নেতাদের উপরে ভরসা করতে পারছেন না বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। বহিরাগত নেতাদের এনেও সুবিধে করতে পারছে না বঙ্গ-বিজেপি। তাই বিহার, গুজরাতের মত অন্য রাজ্যের ন্যক্কারজনক সব ঘটনার ভিডিও এ রাজের বলে দাবি করে মানুষজনকে বিভ্রান্ত করতে চাইছে ওরা।”

আরও পড়ুন : বামফ্রন্টে আবার বড়সড় ভাঙন, লাল ছেড়ে গেরুয়াতে ২২ জন দাপুটে বাম নেতা

সুব্রত দাবি করেন, বিজেপি ভুয়ো ও মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করে বাংলার মানুষকে বিভ্রান্ত করতে পারবে না। বিজেপি-র কফিনে পেরেক পশ্চিমবঙ্গেই পোঁতা হবে।

সুব্রতের সঙ্গে সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা তৃণমূলের সহ সভাপতি শিবেন্দ্রবিজয় মল্লদেব, তৃণমূলের জেলা কমিটির সদস্য গৌতম মাহাতো, ঝাড়গ্রাম শহর যুব তৃণমূলের সহ সভাপতি উজ্জ্বলকান্তি পাত্র ও জেলা যুব তৃণমূলের সদস্য কাজরী মিত্র।

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button