বিচিত্রতা

৬১ বছরের নারীর সঙ্গে ২৪ বছরের তরুণের বিয়ে

ভালোবেসে ৬১ বছরের আমেরিকান নারীকে বিয়ে করেছেন ২৪ বছরের এক তরুণ। অসম সম্পর্কের এই বিয়েতে বর-বধূর বয়সের পার্থক্য ‘মাত্র’ ৩৭ বছর। ওই বৃদ্ধা নারীর সাত সন্তান রয়েছে।তার নাতি-নাতনির সংখ্যা ১৭ জন। তাদের বিয়ের সেই ভিডিও ফ্যানদের জন্য লাইভ প্রচার করা হয়। উভয় পক্ষই সাদরে মেনে নিয়েছেন এ বিয়ে।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইল জানায়, বরের নাম কুরান ম্যাকেইন, বয়স ২৪ বছর। কনের নাম শেরিল ম্যাকগ্রেগর।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, কুরানের বয়স যখন মাত্র ১৫ বছর, তখন শেরিলের সঙ্গে তার প্রথম সাক্ষাৎ হয়। শেরিলের এক ছেলের রেস্টুরেন্টে কাজ করতেন কুরান। তখন ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠা হয়নি তাদের। ঘটনার শুরু মাত্র গত বছর। শেরিলকে একটি দোকানে ক্যাশিয়ারের চেয়ারে দেখেন কুরান, তখন পূর্বপরিচয়ের সূত্রে তাদের মধ্যে ফের আলাপ হয়।

আরও পড়ুন : বিয়ের একঘণ্টা পরই বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন, ক্ষতিপূরণের দাবি স্ত্রীর

তাদের মধ্যে কথাবার্তার এক পর্যায়ের কুরান জানতে পারেন শেরিল টিকটক বানান। একটি ভিডিওতে নিজের নাচের দৃশ্য আপলোড করেছিলেন তিনি। তবে অনেকেই বাজে মন্তব্য করলেও কুরান তাকে সাহস দেন।

শেরিল বলেন, মাঝেমধ্যে এগুলো আমাকে কাঁদাত, কারণ এগুলো বেশি ভয়ানক ছিল। তবে বয়ফ্রেন্ড তাকে পাশে থেকে সমর্থন করত।

কুরান বলেন, এগুলো শেরিলকে প্রকৃত অর্থেই বিরক্ত করত তবে এখন সে আমার, আমি তাকে নিয়ে যুদ্ধে যাব, সে আমার কুইন।

আরও পড়ুন : ভারতের ‘ধনী’ ভিখারির আয় শুনলে অবাক হবেন

গত ৩১ জুলাই আংটি পরান তারা। গত ৩ সেপ্টেম্বর টিকটকের একটি বিশেষ অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভ দেখানো হয়েছে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান।

তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুরান দম্পতিকে কটাক্ষ করতে ছাড়ছেন না নেটিজেনরা। অনেকেই শেরিলকে কুরানের দিদা বলে সম্বোধন করছেন। তবে সমালোচনা পাত্তা দিচ্ছেন না ওই দম্পতি।

আরও পড়ুন ::

Back to top button