রাজ্য

উত্‍সবের মাঝে খানিকটা স্বস্তি! গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সংক্রমিত হয়েছেন ৭৬০ জন, নিম্নমুখী মৃত্যুহারও

শারদোত্‍সবের আনন্দ উদযাপন শুরু হয়ে গিয়েছে রাজ্যজুড়ে। করোনাতঙ্ক কাটিয়ে বাঙালির সেরা উত্‍সবে ভেসে গিয়েছেন সবাই। তারই মধ্য়ে রাজ্যের কোভিড (COVID-19) গ্রাফে আরও খানিকটা স্বস্তি মিলল। কমল সংক্রমণ, মৃত্যু। স্বাস্থ্যদপ্তরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনায় (Coronavirus) সংক্রমিত হয়েছেন ৭৬০ জন, মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। শনিবারের তুলনায় যা কম।

রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের সাম্প্রতিকতম পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনার কবল মুক্ত হয়েছেন ৭৩৪ জন। এ নিয়ে সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৮.৩২ শতাংশ। এ নিয়ে রাজ্যে মহামারীর কবল থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ১৫ লক্ষ ৪৯ হাজার ৭৮৩। আক্রান্তের সংখ্যা ১৫, ৭৫, ৩৩৭। আর করোনার বলি মোট ১৮ হাজার ৯০৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৩৫, ৩৯৮ টি, যার মধ্যে পজিটিভ রিপোর্ট ২.১৫ শতাংশ। এই হার অনেকটা স্বস্তিদায়ক বলে মনে করছে স্বাস্থ্যমহল।

আরও পড়ুন : দুর্গাপুজোর ৪ দিন কলকাতায় মিলবে না করোনা টিকা,জানুন বিস্তারিত

তবে দুই জেলার করোনা পরিসংখ্যানে চিন্তা থাকছেই – কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনা। কলকাতায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন। আর উত্তর ২৪ পরগনায় এই সংখ্যা উত্তর ২৪ পরগনার ১২৩ জন। করোনাযুদ্ধে সবচেয়ে এগিয়ে কালিম্পং, উত্তর দিনাজপুর। এছাড়া অন্যান্য বেশ কয়েকটি জেলাতেও গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা দশের কম।

উত্‍সবের মরশুমে ১০ দিন রাজ্যে খানিকটা শিথিল হয়েছে করোনাবিধি। ১০ থেকে ২০ তারিখ পর্যন্ত নাইট কারফিউ থাকছে না। পুজোর সময় ভিড় এড়াতে রাতেও দর্শনার্থীদের জন্য মণ্ডপ খোলা থাকবে, তাঁরা প্রতিমা দর্শন করতে পারবেন। ২০ তারিখের পর ফের নাইট কারফিউ লাগু হয়ে যাবে। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জোরকদমে চলছে টিকাকরণের কাজ। এ নিয়ে মোট টিকাকরণের সংখ্যা ১৩,৫২,৬৪৩। যদিও পুজোর চারদিন কলকাতায় টিকাকরণ শিবির বন্ধ থাকবে।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

আরও পড়ুন ::

Back to top button