বীরভূম

গরু পাচারকাণ্ডে এবার CBI দফতরে হাজিরা অনুব্রত ঘনিষ্ঠ রাজীব !

গরু পাচারকাণ্ডে এবার CBI দফতরে হাজিরা অনুব্রত ঘনিষ্ঠ রাজীব !

এবার গরু পাচার কাণ্ডে সিবিআই জেরার মুখে বীরভূমের এক ব্যবসায়ী। শুক্রবার নিজাম প্যালাসে সিবিআই দুর্নীতি দমন শাখার অফিসে ঘণ্টা তিনেক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় রাইস মিলের মালিক রাজীব ভট্টাচার্যকে।

গরু পাচার কাণ্ডে এদিনই তলব করা হয়েছিল বীরভূম তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে। অসুস্থতার কারণ দর্শিয়ে তিনি এদিন হাজিরা দেননি। তবে এদিনই তাঁর ঘনিষ্ট ব্যবসায়ী তথা রাইস মিলের মালিক রাজীব ভট্টাচার্যকে জিজ্ঞাসাবাদ করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

সূত্রের খবর, এদিন তিন ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, ওই ব্যবসায়ীর ব্যবসা সংক্রান্ত নথি, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ও আয়কর সংক্রান্ত নথি জমা দিতে বলেছেন গোয়েন্দারা।

প্রসঙ্গত, গরু পাচার মামলায় অন্যতম মূল অভিযুক্ত এনামূল হক ও বিএসএফ কমান্ড্যান্ট সতীশ কুমারকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জেরা করেছিল সিবিআই। সিবিআইয়ের দাবি, সেই সময় এদের জেরা করেই রাজীব সম্পর্কে তথ্য হাতে পায় তদন্তকারী সংস্থা।

মূলত বীরভূমকে করিডোর হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে গরু পাচারের জন্য। সেই সময় অনেক প্রভাবশালী ব্যবসায়ীর ব্যবসাতে বেনামে পাচারের টাকা লগ্নি হয়েছে। সেই সূ্ত্রেই এদিন রাজীবকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

মূলত তদন্তকারী অফিসারেরা খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছেন রাজীবের ব্যবসায় কোনও বেনামে লগ্নি হয়েছিল কি না। সিবিআই সূত্রে খবর, তার ব্যবসা সংক্রান্ত নথিও খতিয়ে দেখা হবে।

তাতে কোনও গরমিল পাওয়া গেলে আবারও তলব করা হতে পারে। শুধু রাজীব নন, এবার সিবিআইয়ের নজরে বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ীও রয়েছে।

সূত্রের খবর, তদন্তের স্বার্থে তাদেরও তলব করা হতে পারে। এদিন রাজীবকে গরু পাচার সংক্রান্ত বিষয়ে বেশকিছু প্রশ্ন করা হয়। সূত্রের খবর, সরাসরি কোনও পাচারকারীর সঙ্গে যোগ ছিল কি না সেই বিষয়টিও খতিয়ে দেখছে তদন্তকারীরা।

এমনকি কোনও প্রভাবশালী রাজনৈতিক যোগসূত্রে তাঁর সাথে পাচারকারীদের যোগ তৈরি হয়েছিল কি না তাও দেখছেন তদন্তকারীরা। একইসঙ্গে এনামুল ও সতীশের দেওয়া বয়ানও যাচাই করেছে সিবিআই।

 

 

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button