বিচিত্রতা

ফ্ল্যাটে ২ বছর ধরে পড়ে ছিল নারীর মরদেহ

একজন ভাড়াটিয়া দুই বছর ধরে ফ্ল্যাটে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকলেও যুক্তরাজ্যের একটি হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন ভাড়া আদায় করেছে। এনডিটিভি জানিয়েছে, শেইলা সেলোয়ান নামে ওই নারীর মৃত্যুর কারণ জানতে পরিচালিত এক তদন্তে বিষয়টি উঠে এসেছে।

বিবিসি জানিয়েছে, ৫৮ বছর বয়সী শেইলা সেলোয়ানের মরদেহ দাঁতের রেকর্ড দ্বারা শনাক্ত হয়েছে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে পেকহ্যামে তার ফ্ল্যাটের লিভিংরুমে একটি সোফায় তার কঙ্কাল উদ্ধার করা হয়।

হাউজিং সোসাইটি পিবডি এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছে। মরদেহ পচে যাওয়ার ফলে ময়নাতদন্তে সেলোয়ানের মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যায়নি। লন্ডনের সাউথ করোনার কোর্টকে জানানো হয়, তিনি ক্রোনের রোগ এবং অন্ত্রের প্রদাহে ভুগছিলেন।

সেলোয়ানের মৃত্যুর বিষয়টি দীর্ঘদিন ধরে না জানার কারণে বিষয়টি সাধারণ জনগণের মনোযোগ আকর্ষণ করেছে। ২০১৯ সালের আগস্টে চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার সময় সর্বশেষ তাকে জীবিত অবস্থায় দেখা গিয়েছিল।

স্বতন্ত্র তদন্তও পরিচালিত হয়েছে এ ব্যাপারে। ভাড়াটিয়ার মৃত্যুর বিষয়টি জানতে ব্যর্থতার জন্য হাউজিং সোসাইটির সমালোচনা করা হয়েছে।

গার্ডিয়ান জানিয়েছে, সময়মতো ভাড়া প্রদানে ব্যর্থ হওয়ার পর হাউজিং সোসাইটির পিবডি ওই নারীর সামাজিক সুবিধা থেকে ভাড়া সংগ্রহের জন্য আবেদন করে। পরিদর্শনের সময় কোনো সাড়া না পাওয়ায় ২০২০ সালের জুন মাসে তারা ওই ফ্ল্যাটের গ্যাসের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

বাসিন্দারা বারবার হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন ও পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে সেলোয়ানের বিষয়ে। পুলিশ দুইবার তার আবাসস্থল পরিদর্শন করেছে। কিন্তু এক পুলিশ কন্ট্রোলারের ভুলের কারণে তাকে জীবিত হিসেবে দেখানো হয় এবং তা পিবডিকে জানানো হয়।

আরও পড়ুন ::

Back to top button