রাজ্য

তিন মাস নয়, রাজ্য বিদ্যুৎ পর্ষদের বিল প্রতি মাসে দেওয়ার ইঙ্গিত মন্ত্রীর

বিলের নিয়মে বড়সড় পরিবর্তন আসতে পারে বলে গ্রাহকদের ইঙ্গিত দিল রাজ্য বিদ্যুৎ পর্ষদ। বুধবার বিধানসভায় এমনই জানিয়েছেন বিদ্যুৎমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। ৩ মাস অন্তর বিলের পরিবর্তে প্রতি মাসেই বিল দেওয়ার পক্ষে ও বিপক্ষে মত পাওয়া গিয়েছে গ্রাহকদের তরফে। তবে মন্ত্রী জানিয়েছেন, গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখে তবেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিন বিধানসভায় বিদ্যুৎমন্ত্রী বলেন, কলকাতার মতো রাজ্যের বাকি জায়গাগুলোতেও প্রতি মাসে বিদ্যুৎ বিল দেওয়া নিয়ে পর্যালোচনা চলছে। এই নিয়ে বিদ্যুৎ দফতর জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে দু’রকম মত পাওয়া গিয়েছে। যদিও পরীক্ষামূলকভাবে কলকাতার ১১১/১১২/১১৩/১১৪ নং ওয়ার্ডের কিছু এলাকা বিদ্যুৎ পর্ষদের অধীনে। সেই সব এলাকায় প্রতিমাসে বিল চালু করা হচ্ছে।’

আরও পড়ুন :: মা হতে চেয়েছিলেন অর্পিতা, সায় ছিল পার্থর, বিস্ফোরক দাবি ইডির

এর পাশাপাশি বিদ্যুৎ চুরি আটকাতে এদিন বিধায়কদের সহযোগিতাও চাইলেন অরূপ বিশ্বাস। সেইসঙ্গে, মানুষকে সচেতন করার ব্যাপারে ভূমিকা নিতে আবেদন জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, রাজ্য বিদ্যুৎ পর্ষদের গ্রাহকদের একাংশের অভিযোগ, ৩ মাস অন্তর বিল দেওয়ার ফলে তাঁদের উপর চাপ বাড়ে। আবার এতে বিদ্যুৎ বিল বেশি আসে বলেও অভিযোগ। মাসিক বিল চালুর দাবিতে অনেক দিন ধরেই আন্দোলন চলছে গ্রাহকদের সংগঠনের।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি বিদ্যুৎ বিল নিয়ে উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাটের সরবেড়িয়ায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। বিদ্যুৎ চুরির অপরাধে ক্ষতিপূরণ বিল পাঠায় রাজ্য বিদ্যুৎ বন্টন সংস্থা। অভিযোগ, তারপরই বিদ্যুৎ দফতরের গ্রাহক পরিষেবা কেন্দ্রে হানা দেয় কয়েকজন দুষ্কৃতী। নিগ্রহ করা হয় দফতরের উপস্থিত সরকারি আধিকারিকদের। ভাঙচুর চালান হয় পরিষেবা কেন্দ্রে। চারজন কর্মচারীকে বাইরে ডেকে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। এই নিয়ে অভিযোগ দায়ের করেছে পশ্চিমবঙ্গ বিদ্যুৎ বন্টন পর্ষদ।

আরও পড়ুন ::

Back to top button