জাতীয়

ভারতের চাপে লাদাখের বেশ কয়েকটি পয়েন্ট থেকে সেনা সরাল চীন

লাদাখে এলএসি বরাবর ভারত ও চীনের মধ্যে উত্তেজনা সারা বিশ্বের নজরে এসেছে। তবে নিজেদের এই উত্তেজনা কমানোর জন্য দুই দেশই বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছে। সর্বভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই -অনুযায়ী গালওয়ান ঘাঁটি নিয়ে আলোচনার মধ্যেই পেট্রোলিং পয়েন্ট ১৫, আর পূর্ব লাদাখের হট স্প্রিং ও গোগরা ক্ষেত্রে পিছু হঠল চীন।

সূত্রের খবর অনুযায়ী চিনের সঙ্গে কূটনৈতিক আলোচনা চলাকালীন পূর্ব লাদাখের পেট্রোলিং পয়েন্ট ১৪ (গালওয়ান ক্ষেত্র), ১৫, ১৭ এ (হট স্প্রিং/ গোগরা) থেকে চিনের সেনা পুরো সরে গেছে। ভারতীয় সেনার সঙ্গে সংঘর্ষ এড়াতেই পিছিয়ে গেছে চীনা সেনা এমনটাই মত ওয়াকিবহাল মহলের।

[ আরও পড়ুন : উ. কোরিয়াকে ১০ লাখ ডলারের চিকিৎসা সহায়তা পাঠাচ্ছে ভারত ]

কোর কমান্ডারদের মধ্যে সমঝোতা অনুসারে এই ক্ষেত্রে যাতে আর উত্তেজনা না হয় তার দিকে নজর রেখেই এভাবে সেনা সরিয়ে নিয়েছে চীন। এখন শেষ পর্যন্ত প্যানগগ লেক এলাকা থেকে খালি সেনা সরানো বাকি রয়েছে চীনের। এখনও প্যানগগ এলাকায় ৪০ হাজার সেনা মোতায়েন রয়েছে। সামনের সপ্তাহ থেকে পরিস্থিতির ওপর নজর রেখে এই সেক্টরের সেনা নিয়ে ঠিক করা হবে সিদ্ধান্ত। এরমধ্যে ফের ২ দেশের সিনিয়র কমান্ডাররা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করার সম্ভবনাও উজ্জ্বল।

দু দেশের মধ্যে সংঘর্ষ এখন অতীত এবার পূর্ব লাদাখের এলএসি থেকে চীনের সেনা সরানোর কাজ শুরু হয়ে গেছে ৷ তবে এখনও প্যানগগে এখনও ৪০ হাজার সেনা সেখানে মোতায়েন রয়েছে ৷ এছাড়া গহরাই -র এলাকায় ভারি অস্ত্রশস্ত্রও মজুত করে রাখা হয়েছে। এর আগেও প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর ২ দেশই পূর্ব লাদাখ সেক্টরে নিজেদের সেনা সরানোর কাজ চালাচ্ছিল। লাদাখের গালওয়ান ক্ষেত্র থেকে ১ কিলোমিটার পিছনে সেনা সরিয়ে দিয়েছে চীন। ২ দেশের সেনারাই নিজেদের মধ্যে বাফার জোন তৈরি করে নিয়েছে। তবে কয়েকটি জায়গায় এখনও মোতায়েন রয়েছে চীনের সেনা। তাই সেই সব সেক্টরে ভারতীয় সেনারাও মোতায়েন রয়েছে। এই সমস্ত এলাকা নিয়ে দুই দেশের সেনা ঐক্যমতে পৌঁছতে পারেনি।

আরও পড়ুন ::

Back to top button