জাতীয়

অদম্য ইচ্ছা শক্তির জোরে রেকর্ড গড়ল মধ্যপ্রদেশের হর্স পণ্ডিত

অদম্য ইচ্ছা শক্তির জোরে রেকর্ড গড়ল মধ্যপ্রদেশের হর্স পণ্ডিত

মানুষ পারেনা এমন কোনো কাজ নেই। ইচ্ছা করলেই মানুষ অসম্ভবকে সম্ভব করে তুলতে পারে। প্রতিকূল পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েও সফলতা ছিনিয়ে আনতে পারে মানুষ। তবে সেক্ষেত্রে নিজেকে দুর্বল না ভেবে, নিজের উপর আত্মবিশ্বাস রেখে, হেরে যাওয়ার চিন্তা মাথায় না রেখে এগিয়ে যেতে হবে।

এইরকমই নিজের অদম্য ইচ্ছা শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ৮২ দিন ধরে ছুটে চলেছে হর্স পণ্ডিত। হর্স পণ্ডিতের বাড়ি মধ্যপ্রদেশের জব্বলপুরে৷ বয়স মাত্র ১৬ বছর, ক্লাস ১০ এর ছাত্র। বয়স অল্প হলেও ইচ্ছা শক্তি কিন্তু চরমে। এদিন হর্স পণ্ডিতকে দেখা গেল পূর্ব বর্ধমানের, জৌগ্রাম এর কাছে দিল্লি- কলকাতা ন্যাশনাল হাইওয়েতে দৌড়াতে। এই দৌড়ানো প্রসঙ্গে হর্স কে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায়।

এই প্রচন্ড রোদে যেখানে মানুষ বেরোতে ভয় পায়, সেই রোদের মধ্যেও না থেমে এগিয়ে চলেছে হর্স।রোজ ভোর থেকে শুরু করে সন্ধ্যে ৭:৩০ পর্যন্ত দৌড়ায় হর্স। তার এই যাত্রায় সঙ্গী হিসেবে রয়েছে তার বাবা হিমাংশু পন্ডিত , একটি গাড়ি এবং গাড়ির চালক । গাড়ির মধ্যেই রয়েছে রান্না করার ব্যবস্থা । হর্স এর কাছে আরও জানা যায় যে এই দীর্ঘ ৬০০০ কিলোমিটারের দৌড় সে ১০৫ থেকে ১১০ দিনের মধ্যে শেষ করতে পারবে ।

২০১৮ সাল থেকে সে দৌড়ানো শুরু করেছে, অংশগ্রহণ করেছে ছোটো বড়ো বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় । এছাড়াও ২০২০ সালে হর্স জবলপুর থেকে নিউ দিল্লি দৌড়ে পৌঁছেছিল মাত্র ১৮ দিনে, অতিক্রম করেছিলো প্রায় ৯০০ কিলোমিটার রাস্তা। এখন তার নতুন লক্ষ্য দৌড়ে ৬০০০ কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম করা, সেইমত ইতিমধ্যেই সে নিউ দিল্লি থেকে তার দৌড়ানো শুরু করে মুম্বাই, চেন্নাই , কলকাতা পেরিয়ে আবার নিউ দিল্লির দিকেই এগিয়ে চলেছে। তবে এই দৌড়ানোর পিছনে রয়েছে এক বিশেষ কারণ। হর্সের কথায় সে গিনিস বুক অফ ওয়ার্ল্ডে তার নাম তুলতে চায়। এই রেকর্ড গড়ে তোলার জন্যই তার এমন প্রস্তুতি।

আরও পড়ুন ::

Back to top button