অপরাধ

পর্নের হুমকি নিজের ই-মেল থেকে, নয়া ফাঁদ তোলাবাজির



হিমাদ্রি সরকার : ই-মেল খুলেই আপনার চোখ কপালে! আপনার মেল আইডি থেকেই কি না মেল এসেছে! অথচ আপনি সেই মেল পাঠানইনি।

ঠিক এমনই মেল প্রাপকের তালিকায় ছাত্র থেকে অধ্যাপক, সরকারি-বেসরকারি চাকুরেও। নিজেরই ই-মেল আইডি থেকে মেল পাওয়াটাও বড় কথা নয়। সমস্যা লুকিয়ে মেলের বয়ানের মধ্যেই। আপনি আপনার কম্পিউটার, ল্যাপটপ বা স্মার্টফোন থেকে কোনও পর্ন সাইট লুকিয়ে ভিজিট করেছেন। তার ভিডিয়ো রয়েছে প্রেরকের কাছে। দাবি মতো টাকা না-দিলেই আপনার পর্ন সাইট দেখার ভিডিয়ো ফাঁস করে দেবে সে, আপনার পরিচিতদের কাছে। অথচ আপনি পর্ন সাইট দেখেনওনি। তবু এমন মেলে ভয় পাওয়ারই কথা।

এ ভাবেই সাইবার প্রতারকরা ভুয়ো মেল পাঠিয়ে তোলাবাজির নয়া রাস্তা বেছে নিচ্ছে। এমনটাই অভিযোগ আসছে সাইবার বিশেষজ্ঞদের কাছে। ব্ল্যাকমেলিংয়ের শর্ত হিসেবে, ৩০ থেকে ৩০০ ডলার চাওয়া হচ্ছে। কী ভাবে টাকা দিতে হবে, তা-ও জানানো হচ্ছে ই-মেলেই। টাকা দেওয়ার জন্য লিঙ্কও থাকছে সেখানে। অনলাইনে মেটাতে হচ্ছে টাকা। এমন মেল পেয়েও অনেকে সরাসরি অভিযোগ জানাতে চান না পুলিশের কাছে। তাতে তো লোকলজ্জার ভয় আরও বেশি। তাই অনেকে ব্ল্যাকমেলারের সঙ্গে দর কষাকষিও করে টাকা দিয়েও দিচ্ছেন প্রতারককে। এমন মেল পেলেই তাই সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন সাইবার অপরাধ বিশেষজ্ঞরা।

ইন্ডিয়ান স্কুল অব অ্যান্টি হ্যাকিংয়ের অধিকর্তা সন্দীপ সেনগুপ্ত বলছেন, ‘প্রতারকরা বলছে, তারা আপনার ডেস্কটপ, ল্যাপটপ বা স্মার্টফোনে এক ধরনের স্পাইওয়্যার পাঠিয়ে দিয়েছে। তাতেই ধরা পড়েছে আপনার পর্ন সাইট দেখার ভিডিয়ো। এটা ঠিক ই-মেল হ্যাকিং নয়, একে বলে ই-মেল স্পুফিং। অর্থাৎ আপনার ই-মেল আইডিতে লগ-ইন না-করেই এমন ভাবে মেল পাঠাচ্ছে, যাতে মনে হবে যেন আপনার ই-মেল আইডি থেকেই মেল এসেছে। যেহেতু নিজের ই-মেল আইডি থেকেই গ্রাহক মেল পাচ্ছেন, তাই তাঁর ধরে নেওয়া স্বাভাবিক যে এটা ভুয়ো মেল নয়।’ সাইবার বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই গ্রাহকের ই-মেলে পাসওয়ার্ড দিয়ে তারা লগ-ইন করছে না। ফলে গ্রাহকের ই-মেল আইডি হ্যাক হয়ে গিয়েছে, সব ক্ষেত্রে এটা ধরে নেওয়া ঠিক নয়। ই-মেল স্পুফিং করে তোলাবাজি চালানোর ছক কষা হচ্ছে। তাঁদের সন্দেহ, টাকা দেওয়ার জন্য যে লিঙ্ক পাঠানো হচ্ছে, তাতে কোনও ম্যালওয়্যার দেওয়া হতে পারে। সেই লিঙ্কে টাকা দিতে গেলে গ্রাহকের স্মার্টফোনটি হ্যাক হয়ে যেতে পারে। তাই নিজের ই-মেল আইডি থেকে এই ধরনের মেল পেলে তাতে ক্লিক না-করারই পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।



Related Articles

Back to top button