অপরাধ

সেক্স ডল কিনতে গিয়ে জমি বিক্রির ৩৫ লাখ টাকা খোয়ালেন শিক্ষক

Cheated for purchasing Sex Toy : সেক্স ডল কিনতে গিয়ে জমি বিক্রির ৩৫ লাখ টাকা খোয়ালেন শিক্ষক - West Bengal News 24

অবসরপ্রাপ্ত এক স্কুলশিক্ষক সেক্স ডল (বিশেষ ধরনের চাইনিজ পুতুল) কিনতে গিয়ে ৩৫ লাখ টাকা প্রতারণার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। পরে তার অভিযোগের প্রেক্ষিতে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে সংশ্লিষ্ট পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ির রাজগঞ্জে। খবর: জি২৪ঘণ্টা

জানা গেছে, রাজগঞ্জ থানার অন্তর্গত বেলাকোবা এলাকার ওই শিক্ষককে বিভিন্নভাবে প্রলোভন দেখিয়ে ৩৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় প্রতারক। দীর্ঘদিন পরেও পুতুল না পাওয়ায় তিনি থানায় অভিযোগ করেন। পরে ঘটনার তদন্ত করে শিলিগুড়ির এক ডান্সবারের মালিক পবন দাস নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে রাজগঞ্জ থানার পুলিশ। তাকে ৫ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট পুলিশ জানিয়েছে, ২০২০ সালে ওই শিক্ষক শিলিগুড়ির হংকং মার্কেটের একটি দোকানে সেক্স ট্রয় কিনতে গিয়েছিলেন। দোকানদার তাকে বলেন, পুতুলটির অনেক দাম, বিদেশ থেকে আনাতে হবে। তিনি যদি অগ্রিম ১ লাখ টাকা দিয়ে বায়না করেন তবে তারা পুতুলটি বিদেশ থেকে আনানোর ব্যবস্থা করবেন। শিক্ষক এই শর্তে রাজি হয়ে অগ্রিম টাকা দিয়ে দেন।

Cheated for purchasing Sex Toy : সেক্স ডল কিনতে গিয়ে জমি বিক্রির ৩৫ লাখ টাকা খোয়ালেন শিক্ষক - West Bengal News 24

তারা আরও জানায়, শিক্ষককে পরে জানানো হয় পুতুলটি ডেলিভারি দিতে যাওয়ার সময়ে রাস্তায় পুলিশ ধরে ফেলে লাইনম্যানকে। পুলিশের জেরার মুখে লাইনম্যান শিক্ষকের নাম বলেছেন। এবার পুলিশকে টাকা দিতে হবে। না-হলে গ্রেপ্তার হতে পারেন তিনি। এভাবে দফায় দফায় তার কাছ থেকে ৩৫ লাখ টাকা প্রতারণা করা হয়।

এই টাকা মেটাতে জমি পর্যন্ত বিক্রি করেন ওই শিক্ষক।

জলপাইগুড়ি পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত বলেন, একটি বিশেষ ধরনের পুতুল কিনতে গিয়ে এক অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক প্রতারকদের ফাঁদে পড়ে ৩৫ লাখ টাকা খুইয়েছেন। এই অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্ত করে পবন দাস নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে তোলা হয়েছে।

তবে, অভিযোগ অস্বীকার করে পবন দাস বলেন, আমি কিছুই জানি না। আমার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করা হয়েছে। যেখানে ৫ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন ..

আরও পড়ুন ::

Back to top button