বর্ধমান

প্রচণ্ড দাবদাহে বাড়ছে তরমুজের চাহিদা, বিক্রি বাড়লেও দাম নেই ফসলের

প্রচণ্ড দাবদাহে বাড়ছে তরমুজের চাহিদা, বিক্রি বাড়লেও দাম নেই ফসলের

তরমুজ গ্রীষ্মকালীন একটি জনপ্রিয় ফল। গরমে তরমুজ দেহ ও মনে শুধু প্রশান্তিই আনে না এর পুষ্টি ও ভেষজগুণ রয়েছে অনেক। প্রচুর পরিমাণে আয়রন, ভিটামিন, কার্বোহাইড্রেট, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও অন্যান্য খাদ্য উপাদান রয়েছে তরমুজে। রাতকানা, কোষ্ঠ-কাঠিন্য, অন্ত্রীয় ক্ষত, রক্তচাপ, কিডনিসহ নানা ধরনের অসুখ প্রতিরোধ করে। গরমের দিনে ঘামের সাথে প্রচুর লবণ ও জল বেরিয়ে যায়। তরমুজে প্রায় ৯৬ ভাগই জল এবং প্রচুর খনিজ লবণ থাকায় দেহে লবণ ও জলর ঘাটতি পূরণ করে।

বসন্তকে ঠেলে সরিয়ে গ্রীষ্মের প্রবেশ কিছুটা দেরিতে হলেও, মাঠে নেমে হাফ সেঞ্চুরির কাছাকাছি, পারদ ছুঁয়েছে কোথাও 40 কোথাওবা তারো বেশি।আবহাওয়া দপ্তরের সর্তকতার মধ্যে রয়েছে তাপপ্রবাহ বৃদ্ধির সাথে লু বওয়ার সম্ভাবনা। চিকিত্‍সকদের আশঙ্কা হিট স্ট্রোক।

এসি সিলিং ফ্যান ঠান্ডা পানীয়ের রমরমা। ফলের মধ্যে , ডাব তরমুজের চাহিদা বৃদ্ধি। বিক্রি বাড়লেও, তরমুজে লাভ পাচ্ছেন না কৃষক থেকে ব্যবসায়ীরা। তারা কাঠগোড়ায় দাঁড় করিয়েছেন পেট্রোলের অসম্ভব মূল্য বৃদ্ধিকে।

ফলন বৃদ্ধি হয়েছে যেমন তেমন চাহিদাও সৃষ্টি হয়েছে যথেষ্ট , কিন্তু পরিবহনের জ্বালানি হিসেবে পেট্রোল ডিজেলের অসম্ভব মূল্যবৃদ্ধি হয়েছে যথেষ্ট। সেই কারণে কুড়ি ২২ হাজার টাকার গাড়ি ভাড়া এখন লাগছে ৩৭ হাজার টাকা। ফলে লাভের ঘরে সিঁধ কাটছে পেট্রোল।

জেলার মধ্যে পুরুলিয়া রাজ্যের বাইরে উড়িষ্যা থেকে রাজ্যের সর্বত্র সরবরাহ হয় এই তরমুজ। কৃষকরা মাঠে দাম পাচ্ছেন 10-15 টাকা। কেজিতে প্রায় পাঁচ ১০ টাকা লেগে যাচ্ছে বিভিন্ন জায়গায় পৌঁছাতে। অথচ ফলন বেশি এবং আমদানি বেশি হওয়ার কারণে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে পনেরো টাকাতে, কখনো কখনো দাম নেমে যাচ্ছে ১০ টাকায়।

আরও পড়ুন ::

Back to top button