রাশিফল ও ভবিষ্যৎ

যে ৩ নামের ছেলেরা সবচেয়ে সুন্দরী বউ পেয়ে থাকে


মানুষের রূপ ঈশ্বরের দান, সুন্দর হওয়া না হওয়ার ওপর মানুষের নিজের কোন হাত নেই। কথায় বলে যে মহিলার মন ভালো তার সৌন্দর্য তত বেশি। যদি মন ভালো হয় তাহলে স্বচ্ছতা তার সৌন্দর্যে প্রকাশ পায়।

তবুও কম বেশি সকলেই চায় যে তার স্ত্রী দেখতে সুন্দর হোক। জ্যোতিষ দেখা যায় কিছু নামের পুরুষদের স্ত্রী খুব সুন্দর হয়। চলুন তবে এক নজরে জেনে নেওয়া যাক যেসব নামের ছেলেরা সুন্দরীর বউ পেয়ে থাকে –

1. B নামের ছেলেরা ঃ- ইংরাজি বর্ণমালায় দ্বিতীয় অক্ষর B এর সঙ্গে ২ সংখ্যাটি সম্পর্কিত। তাই যাদের নামের শুরুতে B রয়েছে তারা প্রেমিক মনের মানুষ হন। কাউকে ভালোবাসাতে ভুলিয়ে রাখতে এরা পারদর্শী। এমনিতে দায়িত্ববান হওয়ার জন্য এদের মধ্যে প্রেম বোধ যথেষ্ট বেশি।B নামের ছেলেরা খুব সুন্দর স্ত্রী পেয়ে থাকেন। আর সবথেকে সুন্দর বিষয় হল এরা ভালোবাসার পিপাসু হয়।

আরও পড়ুন : এই ৫ রাশির জাতকরাই শয়তানি বুদ্ধিতে সেরা

সামান্য ভালোবাসা পেলেই এরা নিজেদের উজার করে দেন। পারিবারিক দিক থেকেও এরা খুব দায়িত্ববান হন। পরিবারের দায়িত্ব নেবার পাশাপাশি পরিবারের প্রতিটি মানুষের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখে চলতে এরা ভালোবাসেন।

২. F নামের ছেলেরা ঃ- ইংরাজি বর্ণমালার ছয় নম্বর অক্ষর F। অন্যদিকে সংখ্যাতত্ত্ব অনুযায়ী এই অক্ষরের মান । তাই সমস্ত দিক থেকে এর গুরুত্ব বেশি। সংখ্যাতত্ত্বের এই হিসাব থেকে বলা যায় F অক্ষর দিয়ে যাদের নাম শুরু হয় তারা খুব সহজ সরল মানুষ হয়।

আরও পড়ুন : নারীরা স্বপ্নে সাপ দেখলে যা হয়

F নামের ছেলেরা খুব সুন্দরী স্ত্রী পেয়ে থাকেন।এদের স্ত্রী সাধারণত খুব সাহসী হয়ে থাকেন, এছাড়াও খুব সহানুভূতিশীল হন। অন্যের সমস্যার সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন, এরা ভীষণ যত্নবান মানুষ হন। সে সম্পর্কই হোক বা মূল্যবান জিনিস অথবা বন্ধু, সকল বিষয় এরা খুবই যত্নবান হন।

৩. L নামের ছেলেরা ঃ- ইংরাজি বর্ণমালার L অক্ষরটি সংখ্যাতত্ত্ব অনুযায়ী মান ৩। তাই ৩ সঙ্খায় যা যা বিশিষ্ট রয়েছে তা বিদ্যমান L নামের আধ্যাক্ষর যুক্ত মানুষদের সঙ্গে। নামের আগে L থাকলে তাদের মধ্যে কোন জিনিস সৃষ্টির একটা আকাঙ্ক্ষা থাকে।

আরও পড়ুন : এখানে ১ মুঠো চাল রাখলে সংসারে কোনদিনও অভাব অনটন হবে না

তাই এই ধরনের মানুষেরা সৃষ্টিশীল হন বেশি।কোন ফেলনা জিনিস থেকে এরা নতুন কোন জিনিস তৈরি করতে সমর্থ হন।L নামের পুরুষদের স্ত্রী খুবই লাজুক ও সুন্দরী হয়ে থাকেন।

এছাড়াও এদের মধ্যে দানশীল বোধ খুবই গারো। কারুর দুঃখ কষ্ট দেখলে এরা ঠিক থাকতে পারেন না। দান বা ত্যাগের মধ্যে দিয়ে এরা সুখ পান। পাশাপাশি যেকোনো পরিস্তিতিতে এরা মানিয়ে চলতে পারেন।

তথ্যসুত্র : ইন্টারনেট

আরও পড়ুন ::

Back to top button